*আত্ম কথা……

ভাবনা গুলো ছড়িয়ে যাক সবার প্রাণে…

Tag Archives: চার্ট রেকোর্ডার

খুবই আন্তরিক ভাবে দোয়া চাচ্ছি…

খুব মন খারাপ থেকে এই লিখাটা লিখছি…

আমি মূলত পড়াশুনা করি তার পাশাপাশি মামার ব্যবসা দেখাশুনা করি। আমার মামার ব্যবসা হচ্ছে টেন্ডার রিলেটেড ব্যবস্যা, আপনার মনে করবেন না আমার মামা ছাত্রলীগ বা আমি ঐ দলের। আমাদের প্রোডাক্ট ভিন্ন যেখানে ওদের কোন বেল নাই। যেমন ইন্সুলেটর যা ইলেক্ট্রিক লাইন এর কাজে লাগে এছাড়াও বিদুৎ ও গ্যাস এর বিতরন কাজের অনেক খুচরা যন্ত্রাংশ আমার আমদানী করি।

গত কয়েক মাস আগে বাপেক্স গ্যাস উত্তোলনের কাজে লাগে এমন মেশিন ক্রয় করার জন্য ইন্টারন্যাশানাল টেন্ডার কল করল। এই টেন্ডার টা ছিল রি-টেন্ডার অর্থ্যাৎ প্রথম বার তারা টেন্ডার কল করেও কিনতে পারে নাই। তাই আমি খুব তোড়জোড় শুরু করলার এই টেন্ডার টা আমাকে যে কোন ভাবেই পেতে হবে। ঠিক ঠাক মত পাক্কা আড়াই মাস খুজা খুজি করে ইউকের একটা কোম্পানী পেলাম। সব কিছু ঠিক ঠাক আল্লাহর রহমতে। জুলাই ০৮ এ ওপেনিং। টেন্ডার টা কেনার জন্য গেলাম বাপেক্সে টেন্ডার পেলাম না সব শেষ তাই কর্তৃপক্ষের দ্বারস্ত হলাম। তারা বলল পেট্রোবাংলায় (কারওয়ান বাজার, যা বাপেক্স কে নিয়ন্ত্রন করে) যান ওখানে আছে। যাই হোক ঢাকার রাস্তার কথা আর নতুন করে কি বলব সারা দিন চলে গেল একটা সিডিউল কিনতে। যাই হোক অবশেষে টেন্ডার ওপেনিং এর ডেট আসল। ৪ টা কোম্পানীর মধ্যে আমার কোম্পানী হল সর্বনিন্ম দর দাতা। এই খব আমি শুনি যখন আমি আমার ক্যম্পাসে থাকি। এই খবর শুনা মাত্র ২ রাকার শোকরানা নামাজ পড়ে আল্লাহর কাছে শোকরিয়া আদায় করলাম। ওপেনিং এ ছিল আমার মামা। ফোন করলাম কি খবর ওখানকার আর কোন আপডেট নিউজ। উনি বলল এখন কোন নিশ্চয়তা নাই আমরা পাব কি না পাব !!! আমি বললাম কেন? আগেই বলে রাখি প্রতিটা টেন্ডারের সাথে একটা নিদিষ্ট পরিমানের বিড বন্ড দিতে হয় বা পে-অর্ডার দিতে হয়। আমরাও দিলাম কিন্তু জামেলা হল বাপেক্স চেয়েছিল ১৮৪ দিন কিন্তু মামার ভু্ল করে ৯০ দিন দিয়ে দিল। কারন আমাদের আগের টেন্ডার গুলোতে ৯০ দিন করে দেওয়ার নিয়ম চালু ছিল। সেই করনে আমাদের টেন্ডার টা বাতিল বলে গন্য হতে পারে। তাই অন্য কিছু ঘটার আগেই দ্রুত কোন সিদ্বান্ত নিতে হবে। মামা ব্যংকে গেল বিড বন্ডের টাইম এক্সটেনশন করে নিল। কিন্তু ততক্ষনে বাপেক্সে এসে দেখে এই টেন্ডারের দ্বায়িত্বে যারা ছিল তার নাই। তাই মামা ফিরে চলে আসল বাসায়। এতক্ষন যা শুনলেন তা হল গত বৃহস্পতিবার এর কাহানী এখন এটার চুরান্ত সিদ্বান্ত হবে আগামী রোববার। দেখা যাক উপর ওলায়া আমার কপালে কি রেখেছে।

এটি আমার লাইফের সব চেয়ে বড় এমাউন্টের কাজ, এই কাজ টা আমি পেলে আমি অনেক লাভবান হব। তাই আপনাদের কাছে আমি আমার জন্য খুবই আন্তরিক ভাবে দোয়া চাচ্ছি। আমি যেন কাজ টা পাই এবং সুষ্ঠ ভাবে কাজ টা শেষ করে বের হয়ে আসতে পারি। প্লিজ