*আত্ম কথা……

ভাবনা গুলো ছড়িয়ে যাক সবার প্রাণে…

অতৃপ্ত অনুভূতি


মানুষের ভালো লাগা গুলো খুবই রহস্যময়, কিছু কিছু মানুষ এই রহস্যময় ভালো লাগার মায়ায় জালে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আটকে যায়, হাজার চেষ্টা করেও এর বলয় থেকে বেরিয়ে আসতে পারে না। এই রহস্যময় জগতে এখনো আমি বয়সে তরুণ, কয়েকদিন আগেই কৈশোরত্তীর্ণ হলাম। মন থেকে এখন ও সেটার পাদুর্ভাব যায় নি, তাই নিজের ভিতর আবেগ গুলো খুব বেশি পরিমাণে উপচিয়ে পড়তে চায়। মাঝে মাঝে আকাশ কুসুম ভাবি । অসম্ভব কে সম্ভবপর ভেবে একধরনের রহস্যময় অসম্পূর্ণ ভালো লাগা বোধ অনুভব করি, আবার পরক্ষনে খুব খারাপ লাগে কারণ তা অসম্পূর্ণ ও অবাস্তব। এই সব ভাবনা গুলো এত বেশী আবেগ তাড়িত যা আমাকে সব নিয়মনীতির ঊর্ধ্বে নিয়ে যায়। নিজের ভিতর অদ্ভুত এক অদৃশ্য সুখ অনুভব করি। তবে এর ব্যাপ্তি ক্ষণস্থায়ী হয়।  যখন এই ঘোর কেটে যায় তখন বোধোদয় হয়,  সব কিছুই অর্থহীন, অযৌক্তিক ও অযাচিত । কিন্তু এতসব কিছুর পরেও নিজের ভিতর শূন্যতা গুলো বারবার ডেকে আনে ঐসব অসম্পূর্ণ অনুভূতি গুলো কে, শূন্যতা দূর করতে। নিজের ভিতর প্রচণ্ড পরিমাণে হাহাকার সৃষ্টি হয়। নিজের অজান্তেই নিজেই হয়ত কিছুর সংস্পর্শের অভাববোদ করি। কি রকম একটা অতৃপ্তি বিরাজ করে।

অতৃপ্ত অনুভূতি

অতৃপ্ত অনুভূতি

এখন আমার নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবা উচিত। নিজের ক্যারিয়ার, এম্বিশন এগুলোর প্রতি কঠোর মনোনিবেশ করাই আমার মূল কর্তব্য । কিন্তু আমার অনিয়ন্ত্রিত মন দিক্বিদিক ছুটে যায় কোন এক অজানা অনুভূতির খোঁজে, রহস্যয়ের খোঁজে। সেই রহস্যময় অনুভূতি টা এমন যা আগে কখনো অনুভব করি নি-একেবারে অচেনা। নিজেকে সামলানো বেশ কঠিন হয়ে পড়ে। মাঝে মাঝে নিয়ন্ত্রণ হারানোর অবস্থা হয়ে পড়ে। এই অতৃপ্ত অনুভূতি আমার পিছু ছাড়ে না। নিজের ভিতর সব উলট পালট করে দেয়, দম বন্ধ হয়ে আসতে চায়। এক ধরনের চাপা কষ্ট কাজ করে। অদ্ভুত অদৃশ্য এক যন্ত্রণা আমাকে গ্রাস করে। নিজের ভিতর সাইমুম বয়ে যায়। নিজেকে আড়াল করার চেষ্টা চালাই। নিশ্চুপ ভাবে এই ধকল সহ্য করে নিই। কাউকে বলা যায় না সে অতৃপ্ত রহস্যময় অনুভূতির কথা। কাউকে সেটা বলে বুঝানো যায় না। তখন ভেবে নিই পৃথিবীতে হয়ত অনেক কিছুই অমীমাংসিত থেকে যায়। যার মীমাংসা হয়ত কোন দিন হবে না। তাই যদি হয় তা হলে নিজেকে কষ্ট দেওয়ার মানে হয় না। এই সব অমীমাংসিত বিষয়ে নিজেকে জড়িয়ে নিজেই বিলীন হওয়ার উপক্রম।

আমাদের পারিপার্শ্বিক অবস্থা আমাদের করেছে লোভী, স্বার্থপর ও জৈবিক। মাঝে মাঝে নিজেই এই সব দ্বারা প্রভাবিত হতে খুব বেশি ইচ্ছে হয়। শেষ পর্যন্ত নিজেকে মুক্ত রাখার প্রাণ-পণ চেষ্টা চালাই। এখন পর্যন্ত নিজের নিয়ন্ত্রণ রেখেছি। কিন্তু এই ভাবে আর কত দিন অসম্পূর্ণ অনুভূতি গুলো সামলানো যাবে ?  নিজেকে যতই বুঝাই কিছু বিষয় অসম্ভব, অবাস্তব কিন্তু অনিয়ন্ত্রিত মন কোন বাঁধাই মানে না। ছুটে চলে সে তার অসম্পূর্ণ অনুভূতি সম্পূর্ণ করার চেষ্টায়। যিনি রহস্য এর সৃষ্টিকারী তিনিই একমাত্র সমাধানকারী। শুধু নিজেকে সংবরণ করার শক্তি চাই তাঁর কাছে, না হলে আমাকেই অনুভূতিশূন্য বানিয়ে দিতে পারে। যে রহস্যময় অতৃপ্ত অনুভূতি আমাকে দিক্বিদিক ছুটচ্ছে তা থেকে চিরতরে মুক্তি চাই। এইসব ভাবনাগুলি যদিও মিছেমিছি কিন্তু বাস্তব জীবনে খুব খারাপ ভাবে প্রভাব ফেলে। তাই স্বাভাবিক ও সম্ভব জগতে প্রাণ খুলে হাসি মুখে পার পেতে চাই সব কিছু। জানিনা আদৌ হবে কি না। এসব অনুভূতি গুলো থেকে যত টুকু বায়বীয় সুখ পাই ঠিক তারচেয়েও শতগুণ বেশী নিজে কষ্ট পাই। এই অতৃপ্ত অনুভূতি গুলো তে সুখ খুঁজে খুঁজে পার করে দিব হয়ত এই জীবনপথ, ভাগ্য সু-প্রসন্ন হলে পরপারে সম্পূর্ণতা পেলেও পেতে পারি। হয়ত সারাটা জীবন সফল ভাবে পার করার পরেও একধরনের অতৃপ্তি নিয়ে পৃথিবী থেকে চলে যেতে হবে।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: