*আত্ম কথা……

ভাবনা গুলো ছড়িয়ে যাক সবার প্রাণে…

উড়ো চিঠি…


উড়ো চিঠি

বরাবর,
চীফ কন্ট্রোলার,
আফটার প্রডাকশন সার্ভিস,
সদর দপ্তর,সপ্তম আসমান।

পত্রের প্রথমে আমার যথাবিহীত সন্মান নিবেন। আপনে যেমন টি চাচ্ছেন ঠিক তেমন ভাবেই চলছে সব কিছু । আমি একজন আপনার অতি নগন্য মাখলুকাত । আমি একটা দো-টানায় অবস্থান থেকে আপনাকে লিখতে বসেছি জানি না এর উত্তর আপনে কি ভাবে দিবেন। আপনার বানানো তিন দিনের দুনিয়াতে তাল মিলিয়ে হাটতে হাটতে মাঝে মাঝে আমি হোঁচট খাই আর কত গুলো উল্টা পাল্টা ব্যপার স্যপার আমারে খুব ভাবুক বানায়, জ্ঞানের দৌড় সীমিত তাই নিজের ভাবনা নিজের কাছেই  রাখি, আমি জানি আপনি এই সব বিষয় আগেই অবগত তারপরেও আনুষ্ঠানিক ভাবে কিছু ব্যপার আপনাকে জানাতে চাই। আমি মনে করে আমার মত যারা আছে তাদের কাছেও বিষয় টা আরো স্বচ্ছ হবে।

আপনে আমারে বানাইছেন আপনার কথামত কাম কাজ করতে আল্লাবিল্লা করতে এতে আমার আপত্তি নাই কিন্তু আপনে আবার ইবলিস ও বানাইছেন, তারে আমার থেকেও বেশি ক্ষমতা দিছেন আর সেই ইবলিস তার ক্ষমতা দেখাইয়া আমারে আপনার কাম কাজ করতে ক্রমাগত ভাবে বাধা-বিঘ্ন সৃষ্টি করে যাচ্ছে, আপনে আমাকে বিবেক-আবেগ-বুদ্ধি দিয়েছেন কিন্তু প্রায় সময় আমি তার প্রতারনার শিকার হই, কারন নাকি আমার ঈমান খুব নড়েবড়ে। আপনে তো সব কিছুরই খবর রাখেন তারপরেও আপনে আমার উপর কেন ইবিলিস শয়তান রে ছাইড়া দিলেন ?  জানি না কোন রহস্য আপনে আমার লগে খেলতেছেন ?
আদম বাইনাইছেন, আদমের জন্য দুনিয়া ও বানাইছেন আবার আদমে আদমে যুদ্ধ, হিংসা, কু-বুদ্ধি আরো কত কী দিয়েছেন, আবার এমন কিছু কিছু আদম বানাইছেন যারা আপনারে ই বিশ্বাস ও করে না, আপনে আছেন এটা ওরা মানবার পারে না, এসব দেখে আমি মাঝে মাঝে খুব মঝা পাই আর ভাবি হয়ত এটা আপনে আমার বিনোদনের জন্য দিয়েছেন , এখানে ও আপনে রহস্য এর বীজ বুনে দিয়েছেন।
আসমান জমিন জমিনে যা কিছু বানাইছেন তা নাকি আমাগো খেদমতের জন্য আর আপনার এই নেয়ামত ভোগ করে আমি একের পর এক বেঈমানি করতাছি জানি না শাস্তির পরিমান কেমন হইবে। আপনে জানেন আমার এমনেই তেই ঈমান যায় যায় অবস্থা, তাই আপনার কাছে আমার জোরালো অনুরোধ রইল, আমার সব অপরাধের শাস্তি মাফ করে দিয়েন আর যদি মাফ না করেন তাহলে দুনিয়াতে প্রায়চিত্ত করার সুযোগ দিয়েন, তবে তা অল্প পরিমানে।
নারী বানাইছেন পুরুষের অর্ধাঙ্গিনী করে কিন্তু তাদের মধ্যে কিছু নারীর বেহায়াপনা আমারে খুব ঝাঁকুনি দেয় জানি না আপনে কেমনে ভাবে সহ্য করেন।
আপনে এত প্রোডাক্টস বানাইছেন এবং প্রত্যেক টার পিছনে কোন না কোন রহস্য দিয়েছেন যা উন্মোচন করা কোনদিনও সম্ভব নয় , আপনার এইসব বিচিত্র সৃজনশীলতা আমাকে টাস্কি খেতে বাধ্য করে।
দিন দিন কত কিছু আবিস্কার করতেছে আপনার মাখলুকাতরা তা দেখেও আমি কিঞ্ছিত দ্বিধা গ্রস্থ হই, মনে হয় তারা আপনার বাজার দখল করতে চাইতাছে কিন্তু এরপরেও আমার বিবেক আমার জানায় অন্য কথা ‘ওস্তাদের মাইর শেষ রাইতে’, সব কিছু নিজেই ঘটান আর আমগো মত নড়েবড়ে ঈমান দার মাখলুকাতের ঈমান টেষ্ট করেন, জানেন ফেল করুম তারপরেও ক্যন জানি এসব টেষ্ট নেন বুঝি না। যত দূর জানি যেদিন সব কিছুর আবিষ্কার শেষ হইবো সেই দিন নাকি বাঁশি বাজবে, এখানেও আপনে আরেকটা রহস্য লাগিয়ে রেখেছেন।
আমার রে পাঠাইলেন এমন এক দেশে যে দেশের মানুষ কয় এক কথা করে আরেক কাম, একজনের পিছে আরেক জন বাঁশ লাগাইয়া বসে থাকে আর সময় মত ঐ বাঁশ নাড়াছাড়া করে দেখে বাহ! সবাই সব কিছু বুঝেও ঘাপটি মেরে বসে থাকে আর আফসোস করে, ইস!! আমি ও যদি এমন করে বাঁশ দিতে পারতাম, কিন্তু তারা এটা বুঝে না কাউরে বাঁশ মারলে এর বিপরীতে সে কানাওয়ালা টা ফেরত পাইতে হইতে পারে।
আমরা বাংলাদেশীরা বা আমাদের পূর্ব পুরুষেরা আপনার সাথে কি বড় কোন অন্যায় করে ছিলাম নাকি? আমি এই ব্যপারে বিশদ কিছু জানতে চাচ্ছি , তবে আমি একটা ব্যপার নিশ্চিত আপনার অলৌকিক আদেশ ছাড়া এই দেশ বদলাবে না। এমন কি কিছু করার ইচ্ছা আপনার আছে নাকি? থাকলে দয়া করে খুব তাড়াতাড়ি করেন আমার আর সহ্য হচ্ছে না।
আপনার ফেক্টরির একই মাল হয়েও তাদের কে আপনে সমান কামে লাগান নাই এমনকি সমান স্থানে ও রাখেন নাই, কেউ না খাইয়া মরে আর কেউ খাইতে খাইতে মরে, কেউ শীতে মরে আর কারো গতরে তিন চার পরত লাগাইয়া মরে , বাহ!!! বড়ই রহস্য !!!
কিন্তু  আপনে আমারে শুধু আফসোস করার ক্ষমতাই দিছেন, আপনার মাখলুকাতদের জন্য কিছু করার ক্ষমতা দেন নাই,
আমি চাই আমার এই ক্ষমতা টা তুলে নিয়ে যান বা সবারে সমান কইররা দ্যন।
আপনার কিতাব আর আপনার দোস্ত কে নিয়া আপনার মাখলুকাতরা আপনার লগে ইতরামী করে, আমি নিজে এই ব্যপার গুলো সহ্য করবার পারি না, আর আপনে কেমনে কি করেন বুঝি না। মাঝে মাঝে ভাবি আপনে হয়ত  তাগোরে লাগাইয়া দিছেন আমগো পিছে, এটা আবার কোন রহস্য ? বুঝি নাহ!!
তয় শেষ কথা একটাই। আপনে যদি আমারে কোনো কারনে তাড়াইয়া দেন আমার করার কিছু করার থাকব না, আপনার কসম খাইয়া কইতাছি, আপনে ছাড়া আমি আর কাউরে মানি না। আর যত দিন বাঁইচ্চা থাকুম তত দিন গুনাহ কম করার চেষ্টা করুম আর যত টুকু গুনাহ করুম ওটার জন্য অগ্রিম মাফ চাই কারন আপনে আমারে মাফ না করলে কারে করবেন কন? মাখলুকাত বানাইছেন তাই আপনার কাছে আমি নিজেরে উৎসর্গ করুম, গুনাহ করুম মাফ চামু, এক্সপায়ার ডেট শেষ পরকালে হুর লগে থাকতে দিবেন। ব্যস এর বেশি কিছু চাই না।
এই চিঠির উত্তর আমার স্বপ্ন মারফত জানালে আমি খুশি হইবো তয় স্বপ্ন দোষ যেন না হয় সেই ব্যপারে আপনার পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নিবেন।

ইতি,
জনৈক মাখলুকাত।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: